Logo
শিরোনাম

বৃষ্টি উপেক্ষা করে বায়তুল মোকাররমে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৯ জুন ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১২ নভেম্বর ২০২৩ | ১৭১৫জন দেখেছেন
নিউজ পোস্ট ডেস্ক

Image

বৃষ্টি উপেক্ষা করে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে পবিত্র ঈদুল আজহার প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম জামাতে ইমামতি করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা এহসানুল হক ইমামতি। আর মুকাব্বির ছিলেন বায়তুল মোকাররম মসজিদের খাদেম আব্দুল হাদী। বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় এ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

দ্বিতীয় জামাত সকাল ৮টায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন বায়তুল মোকাররমের পেশ মাওলানা মুহীউদ্দিন কাসেম এবং মুকাব্বির থাকবেন বায়তুল মোকাররমের অবসরপ্রাপ্ত মুয়াজ্জিন হাফেজ ক্বারি মো. আতাউর রহমান।

অন্যদিকে, জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে সকাল ৯টার তৃতীয় জামাতে ইমামতি করবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মুফাসসির মাওলানা আবু সালেহ পাটোয়ারী। এতে বায়তুল মোকাররমের চিফ খাদেম মো. শহিদ উল্লাহ জামাতের মুকাব্বির থাকবেন।

পাশাপাশি ঈদের চতুর্থ জামাত হবে সকাল ১০টায়। এতে ইমাম থাকবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক মাওলানা মো. আনিসুজ্জামান সিকদার এবং মুকাব্বির থাকবেন বায়তুল মোকাররম মসজিদের খাদেম হাফেজ মো. রুহুল আমিন।

এছাড়াও বায়তুল মোকাররমে পঞ্চম ও সর্বশেষ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে। এতে ইমাম থাকবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মুফতি মাওলানা মোহাম্মদ আবদুল্লাহ এবং মুকাব্বির হবেন খাদেম হাফেজ মো. জহিরুল ইসলাম।

তবে পাঁচটি জামাতে কোনো ইমাম অনুপস্থিত থাকলে বিকল্প ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনে উপ-পরিচালক মাওলানা জাকির হোসেন।

এর আগে, সাঁঝ সকালে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ঝুম বৃষ্টি শুরু হয়। বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৬ টার দিকে রাজধানীর মতিঝিল, পল্টন, গুলিস্তান, বাড্ডা, মগবাজার, হাতিরঝিল, মুগদা, খিলগাঁও, বাসাবো, যাত্রাাবাড়িসহ বেশ কিছু এলাকায় এ বৃষ্টি হতে দেখা যায়। ঈদের দিনে সকাল সকাল এ বৃষ্টিতে ভোগান্তিতে পড়ের মুসল্লিরা।

আজ সকাল ৭ টায় এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত অনেক জায়গায় ঝুম বৃষ্টি হচ্ছিল। গতকাল বুধবারও দিনভর রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। দিনভর বৃষ্টিতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। এতে চরম বিপাকে পড়েন নগরবাসী।

ঈদের দিনও বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথা আগেই জানিয়েছিল আবহাওয়া অধিদপ্তর। বুধবার রাতে আবহাওয়াবিদ একেএম নাজমুল হক জানান, রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে।


আরও খবর

আজ ঈদ

বৃহস্পতিবার ১১ এপ্রিল ২০২৪